,

“বিকলাঙ্গ” মোঃ আদিল মাহমুদ

কবিতা–“বিকলাঙ্গ”
মোঃ আদিল মাহমুদ

পঞ্চেন্দ্রিয় থাকলেই মানুষ হয় না,থাকতে হয় পুষ্প
সুরম্য মন,
এ শোভন বসুধা’তে,পবিত্র চিত্ত তৈরি করতে দিতে
হয়না পণ।
এক পা অচল বলে আজ, তোমাদের মনে আমার
নেই পানা,
সৃষ্টির মধ্যে লুকানো জ্ঞান,পরকালে হয়তোবা তুমি
হবে কানা!

সৃষ্টিকর্তা”র সৃষ্টি যে সবাই, আমরা ‘মানব,
অবস্থায়, আমি পঙ্গু বলে, হইও না ‘দানব।
এখন শুধু তোমার যৌবন, হাত পা আছে,
পচন ধরলে,কেউ যাবে না তোমার কাছে।

আমি বিকলাঙ্গ, পেটের ক্ষুধা সহ্য করে কষ্টে হেঁটে
চলি,
আনুকূল্য চাইলে অনুক্ষণ শুধু বল,শূন্য তোমাদের
থলি।
বিধাতা দিয়েছে সুখ তোমাদের,তাই বলে করো না
অহঙ্কার,
মনে রেখো,ইনসানের জীবনে এসবকিছু,ক্ষণিকের
ঝঙ্কার।

সব অঙ্গ নেই বলে, আমি বিকলাঙ্গ,
ইলাহি জানেন কেন, আজ অনুষঙ্গ।
ধরা’য় সব সমান, নেই সাঙ্গোপাঙ্গ,
গর্বিত হয়ে বলছি, আমি উত্তমাঙ্গ।
ভেবনা বিধাতা বোকা, তোমরা তরঙ্গ!
খোদার উদ্দেশ্য শ্রেষ্ঠ, বিরত প্রসঙ্গ।
তিনি অদ্বিতীয় ব্যোমে, বিকল অনঙ্গ,
স্রষ্টা হবেন সহায়, নইতো বিহঙ্গ।

ভয় নেই ঈশ আছে, নষ্ট থাক অঙ্গ,
অক্ষম সেরা সৃজন, করি নিত্য রঙ্গ।
আমি নৃ-র মতো সৃষ্টি, বলনা অপাঙ্গ,
নিয়ত থাকি বিরত, হ্নদয়ে উচ্চাঙ্গ।
ধরণীতে আছে তৈরি, বিশাল আরঙ্গ,
শান্তনা আমি মানুখ, নির্মাণে অভঙ্গ।

বিকলাঙ্গ”রা খোদার নেয়ামত, করতে হবে তাদের
খেদমত,
ভাবতে হবে আসবে কেয়ামত, দৃশ্যমান হবে রবের
হেকমত।
পুণ্য করার সময় ভাই এখন, পার পাওয়া যাবে না
তখন,
বিকলাঙ্গ”রা স্বর্গের পবন,সেবা করে করো নেকির
বপন।

লেখক-:  ইন্সপেক্টর (তদন্ত)

পরশুরাম মডেল থানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*