,

ইমাম ও মুয়াজ্জিনকে সুশীলনের নগদ অর্থ বিতরণ

মোঃ শেখ রাসেল, হ্নীলা:

টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নে করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া বিভিন্ন মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিনসহ ১৩৫ জনকে সুশীলনের ৪৫০০ টাকা করে নগদ অর্থ প্রদান করেছেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম। ২৬ জুলাই বিকেলে হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের মিলনায়তনে বিশ্ব খাদ্য সংস্থা (WFP)র অর্থায়নে এনজিও সংস্থা সুশীলনের মাধ্যমে এ অনুদান প্রদান করা হয়।

এসময় টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, আমার কাছে যখন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক এনজিও সংস্থাগুলো বিভিন্ন সাহায্যের কথা বলতো তখন আমি দেয়ার সময় দেখতাম বিভিন্ন সম্প্রদায় সুযোগ সুবিধা গুলো পেত। কিন্তুু ধর্মীয় নেতৃবৃন্দরা যারা আছেন তারা সম্মানিত ব্যক্তি, সব জায়গায় গিয়ে তারা চাইতে পারেন না, সেজন্য আমি চেয়েছি সুশীলন এনজিও যে সহযোগিতা দিচ্ছে সেটা যেন মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিনেরা যেন বাদ না পড়ে। আপনারা ধর্মীয় নেতা আপনাদের কথা সমাজের সর্বস্তরের লোকেরা শুনেও মানে। তাই আপনারা প্রতি শুক্রবারে আমাদের দেশের বর্তমান যে সমস্যা করোনা, বাল্যবিবাহ, মাদক ও মানব পাচার নিয়ে নির্ভয় কোরআন ও হাদিস দিয়ে আলোচনা করে মানুষকে বোঝাবে। যেহেতু আমাদের টেকনাফ এর অভিশাপ থেকে বাঁচতে পারে। আগামী দিনে যে কুরবান অনুষ্ঠিত হবে তা ইসলামীক ফাউন্ডেশনের নিয়ম অনুযায়ী সরকারি নির্দেশিত বিধি-বিধান মেনে পালন করবেন। ঈদের জামায়াত মসজিদ ছাড়া কোন খোলা স্থানে হবে না। সকলে স্বাস্থ্যবিধির ক্ষেত্রে বেশি বেশি নজর দিবেন। রোহিঙ্গা আসার কারণে স্থানীয়রা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে পর্যাক্রমে অসহায় স্থানীয়দের এনজি ও সংস্থার মাধ্যমে সহযোগিতা করা হবে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুশীলনের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নূরুল ইসলাম, হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শেখ ফরিদ উদ্দীন সহ আরও অনেকেই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*