,

টেকনাফে মাদক মামলায় সাক্ষী দেওয়ায় এক চৌকিদার নিরাপত্তাহীনতায়! থানার মামলা

বিশেষ সংবাদদাতা:

কক্সবাজার টেকনাফে মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশের সাথে সহযোগিতা এবং মাদক মামলার সাক্ষী হওয়ায় সাবরাং ইউনিয়নের চৌকিদার মৃত ঠান্ডা মিয়ার পুত্র আলী আহমদ (৫৫) বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

উল্লেখ্য গত ১৫ জুন রাতে সাবরাং ইউনিয়নের টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে সাবরাং মন্ডল পাড়া চেয়ারম্যান নূর হোসেনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ৪০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। এবং উক্ত মাদক মামলায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নূর হোসেনকে প্রধান আসামি করে তিনজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু করা হয় উক্ত মামলা নং ৩২।

পরে টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ বাদী হলে এবং দফাদার আলী আহমদ উক্ত মাদক মামলার প্রধান সাক্ষী হয়। এদিকে দায়েরকৃত মামলায় প্রধান সাক্ষী চৌকিদার আলী আহমদকে স্থানীয় মাদক মামলার প্রধান আসামি চেয়ারম্যান নূর হোসেন চৌকিদারকে চাকরীচ্যুত সহ মুঠোফোনে প্রাণনাশের হুমকি-ধমকি দেয় বলে ডায়েরিতে উল্লেখ করেন যার ফোন নম্বর ০১৮৭২৬৪০১৪৩।

পরে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে পুলিশের সহযোগিতা এবং সাক্ষী হওয়ায় এটি তার জন্য ভবিষ্যতে কাল হয়ে দাঁড়ায়। চৌকিদার আলী আহাম্মদ নিরাপত্তার স্বার্থে নিরুপায় হয়ে ২১ শে জুন টেকনাফ মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন যার ডায়েরি নম্বর ৬৩৫।

ডায়েরিতে সাবরাং মন্ডল পাড়ার আমির হামজার পুত্র চেয়ারম্যান নূর হোসেনকে প্রধান আসামি করে এ ডায়েরীটি লিপিবদ্ধ করা হয়। পরে উক্ত ডায়েরীটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে হস্তান্তর করা হয়। এ বিষয়ে তিনি উপজেলা প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন চৌকিদার আলী আহাম্মদ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*