,

কক্সবাজারে সাংবাদিকদের মানববন্ধ: সাংবাদিক লিটন কুতুবীর বসতঘর নির্মাণ ও জড়িত এসিল্যান্ডের অপসারণ চাই

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজারে কর্মরত সাংবাদিকদের মানববন্ধনে বক্তারা বলেছেন, করোনার মহামারিতে মানুষ যখন ঘরবন্দি ঠিক তখন একটি সংবাদের সুত্র ধরে আক্রোশী হয়ে কুতুবদিয়ায় সাংবাদিক লিটন কুতুবীর বসতঘর ভাংচুর করেছে এসিল্যান্ড। অবিলম্বে সাংবাদিকের ভাংচুর করা বসতঘর নিমার্ণ ও ঘটনায় জড়িত এসিল্যান্ডকে অপসারণের দাবী জানান বক্তরা। না হয় পরবর্তী কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারীদেন তারা। বক্তারা আরো বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এমন পরিস্থিতিতে লিটন কুতুবীর বসতঘর ভেঙে গৃহহীন করে দেওয়া খুবই দু:খ জনক ঘটনা। আমরা এহেন ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। শুধু এসিল্যান্ড সাংবাদিকের বাড়ি ভাংচুর করে ক্ষান্ত হননি বরং জামায়াত-শিবির দিয়ে তৈরি করা সরকারী এই কর্তার স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী তার বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস ও মন্তব্য ছুঁড়ে দিয়ে প্রতিনিয়ত মানহানি করে আসছে। তার বাহিনীর লিখা কু-রুচিপুর্ণ এসব স্ট্যাটাস ফেসবুকে ট্যাগ করে সমাজে তাকে খারাপ বানানোর অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে । এসিল্যান্ড আসকারায় এসব চ্যালা-চামুন্ডারা ৩০ বছরের একজন সিনিয়র সাংবাদিকের মানহানি করতে উঠে পড়ে লেগেছে। প্রয়োজন হলে জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলে আমার ডিজিটাল আইনে মামলার প্রক্রিয়ায় যাব। তবে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাংবাদিকবৃৃৃৃন্দ। সাংবাদিক মো.শাহাদাত হোছাইন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, আরটিভির কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও আমাদের কক্সবাজার পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুর রহিম শাহীন, মোহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি আমানুল হক বাবুল, দৈনিক গণসংযোগ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এম. আমান উল্লাহ, আমরা কক্সবাজারবাসী সংগঠনের সম্বন্বয়ক ও জেলা জাতীয়পার্টির যুগ্ম-আহবায়ক নাজিম উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সাংবাদিক ওয়াহিদ রুবেল, এহসান আল কুতুবী, সায়মুন আমিন, এন.আলম, মো.শফিকুল ইসলাম, আশরাফুল হাসান রিসাদ, জসিম উদ্দিন, আবদুল গফুর, সোহেল আরমান, নুরুল আবছার, আবদুল গফুর (২), সোহেল রানা, আকতার কামাল সোহেল প্রমুখ। জানা যায়, ১৯৬০ সালের প্রলয়ংকরী ঘূর্ণিঝড়ে সাংবাদিক এসকে লিটন কুতুবীর ঘরবাড়ি বঙ্গোপসাগরে তলিয়ে যায়। এরপর সরকারিভাবে পূর্ণবাসিত হয় আজম কলোনীতে। এই জায়গা দীর্ঘ ৬২ বছর ধরে বসবাসরত বংশধররা ভোগদখল করে আসছে। সাংবাদিক এসকে লিটন কুতুবী কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি, দ্যা ডেইলি মর্নিং অবজারভার, দৈনিক পুর্বদেশ ও দৈনিক দেশবিদেশ পত্রিকার কুতুবদিয়া প্রতিনিধি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*