,

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবিতে ১৫ রোহিঙ্গা নিহতের ঘটনায় ৪ দালাল আটক

মুহাম্মদ জুবাইর, টেকনাফ:
মঙ্গলবার (১১ফেব্রুয়ারী) বঙ্গোপসাগরে রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার ডুবির ঘটনায় সন্দেহজনক ৪ দালালকে আটক করেছে পুলিশ।
ট্রলারডুবির ঘটনায় কোস্টগার্ড অভিযান চালিয়ে সর্বশেষ ১৫ মৃতদেহ এবং জীবিত ৭২জনকে উদ্ধার করেছে। তাদের মধ্যে ২ জন বাংলাদেশীও রয়েছে বলে জানা যায়।
সুত্রে জানা যায়, গত ১০ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যারদিকে বাহারছড়া উপকূল হয়ে ছেড়ে আসা ২টি ট্রলার অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়ার কারণে সেন্টমার্টিন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের অদূরে ভোররাতে ডুবোচরে আটকে দূঘর্টনার কবলে পড়ে। ট্রলারে থাকা জনৈক আব্দু সাহায্য চেয়ে ৯৯৯নম্বরে কল করে। সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার কোস্টগার্ড সাগরে উদ্ধার অভিযানে যায়। এসময় ১টি ট্রলার নিখোঁজ হলেও অপর ১টি ট্রলার এবং সাগর হতে ভাসমান ১২জন নারী, ৩জন শিশুর মৃতদেহ এবং ৪৬জন নারী, ২২জন পুরুষ ও ৪জন ছেলে শিশুসহ ৭২জনকে জীবিত উদ্ধার করে সেন্টমার্টিন জেটিতে এনে প্রাথমিক চিকিৎসা ও শুকনো খাবার দিয়ে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
উদ্ধারকৃত ট্রলারে কক্সবাজারের কুতুপালং, বালুখালী, শামলাপুর, জাদিমোরা, নয়াপাড়া ও লেদাসহ বিভিন্ন ক্যাম্পের এক’শ ৩৮ যাত্রী ছিলো বলে জানায় উদ্ধারকৃতরা।
এঘটনায় দালাল সন্দেহে কুতুপালং ক্যাম্প সি-৩ এর বাসিন্দা আব্দুস সালামের ছেলে আজিজ (৩০), বালুখালী বি-৩এর বাসিন্দা কবির হোসেনের ছেলে ওসমান (১৭), নোয়াখালী পাড়ার হাসান আলীর ছেলে ছৈয়দ আলম (২৭) এবং একই এলাকার ফয়েজ আহমদের ছেলে উলা মিয়াকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কূমার দাশ জানান, আটক দালাল ও ভিকটিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অন্যান্য দালালদের আটক করতে পুলিশের অভিযান চলছে বলেও জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*