,

মাদকমুক্ত করার অঙ্গিকার ও সোন্দর্য বর্ধনের উদ্যোগ নেওয়ায় টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপের প্রশংসায় টেকনাফবাসী

জিয়াউল হক জিয়া, টেকনাফ
দেশের সর্ব দক্ষিনে অবস্থিত সিমান্ত নগরী টেকনাফ পৌর শহর। প্রতি বছর শীত মৌসুমে প্রাকৃতিক দৃর্শ্যেঘেরা এই শহরটি দেখার জন্য দেশী-বিদেশী হাজার হাজার পর্যটকের আগমন ঘটে। এদিকে প্রতি বছরের ন্যায় পর্যটকদের আকৃষ্ট করার জন্য, টেকনাফ পৌর শহরকে নবরুপে এবং সজ্জিত করার এক মহতি উদ্যােগ হাতে নিয়েছে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস। শুধু তাই নয় টেকনাফ থেকে মাদক নির্মুলে যুদ্ধ করেই যাচ্ছেন এবং সফলতাও পাচ্ছেন। পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে গত কয়েক দিন ধরে অত্র পৌর শহরকে সৌন্দর্য্য বর্ধনে রুপান্তরিত করার জন্য রাস্তার দুই পাশে, মার্কেট ও দোকানের সামনে হরেক রকমের গাছের টপ দিয়ে পর্যটকের আকৃষ্ট করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।
টেকনাফ মডেল থানার সফল অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ দাশের প্রসংশনীয় এই উদ্দ্যােগকে অত্র এলাকার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ, ব্যবসায়ী ও আগত পর্যটকরা সাধুবাদ জানিয়েছেন। পাশাপাশি মাদকের আগ্রাসন থেকে টেকনাফবাসীদের মুক্ত করতে যে অগ্রণী ভুমিকা রেখে যাচ্ছেন তার জন্যও সকলেই সাধুবাদ জানাচ্ছেন। এদিকে ওসি প্রদীপের নির্দেশে টেকনাফে মাদকের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযানে টেকনাফ থানার,  এসআই বোরহান উদ্দিন, এসআই মশিউর, এএসআই অহিদ উল্লাহ, হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই নাজমুল আলম ও এএসআই আরিফ গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা রাখছেন বলে এলাকার সাধারণ মানুষের আলোচনায় উঠে এসেছেন। এলাকাবাসী বলছেন, ওসি প্রদীপের সঠিক নির্দেশনায় উল্লেখিত অফিসারেরা নিজেদের জীবনবাজি রেখে মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করে যাচ্ছেন। এদিকে গত ১৯ ডিসেম্বর টেকনাফ পৌরসভা অলিয়াবাদ শাপলা চত্বর ও জিরো পয়েন্ট মোড়টিকে নতুন রুপে সাজানোর মধ্য দিয়ে পুরো টেকনাফ শহরকে সুন্দর্যবর্ধন করেছেন ওসি প্রদীপ। পাশাপাশি রাস্তার দুই পাশে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্টান, দেয়ালে, গাছে ঝুলানো থাকা পুরনো বেনার গুলো নামিয়ে নিয়েছেন। এব্যাপারে স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পথচারিরা অভিমত প্রকাশ করে বলেন (ওসি) প্রদীপের এই মহতি কাজের উদ্যোগটি সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন হলে পর্যটন খ্যাত টেকনাফ পৌর শহর তথা দেশ-বিদেশ থেকে আসা আগত পর্যটকদের আকৃষ্ট করে তুলবে। তবে এই সৌন্দর্য্যকে ধরে রাখার জন্য পৌর শহরের ভিতরে ক্ষত-বিক্ষত সড়ক গুলো সংস্কার করা হলে সারা বিশ্বে টেকনাফ পৌরসভা আধুনিক এবং আকর্ষনীয় পৌরসভা হিসাবে পরিচিতি লাভ করবে। শুধু তাই নয় এ সুন্দর্য্য ধরে রাখতে হলে পৌরবাসীর মন সুন্দর হতে হবে বলেও অনেকেই মন্তব্য করছেন। ওসি প্রদীপের মহতি উদ্যোগ দেখে পৌর এলাকার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের মুখে হাসির ঝলক দেখা যাচ্ছে। ওসি প্রদীপ প্রতিটি দোকানে গিয়ে এও বলেছেন, পর্যটকদের আকৃষ্ট করার জন্য প্রতিটি দোকানের সামনে একটি করে গাছের টপ বসান। তিনি বলেন গাছের টপ বসানোর জন্য যাদের সামর্থ্য নেই তাদেরকে টপ বসানোর টাকা নিজ তহবিল থেকে ব্যবস্থা করে দিবেন। সর্বপুরী ওসি প্রদ্বিপ টেকনাফে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানে যেমন প্রশংসা পেয়েছেন তেমনি টেকনাফবাসী ও দেশী বিদেশী পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে গাছ লাগানোর যে প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তার জন্য খুববেশি প্রশংসা খুঁড়িয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*