,

নতুন নেতার নাম ঘোষণা করলো আইএস, যুক্তরাষ্ট্রকে হুমকি

ডেস্ক নিউজ ::

নতুন নেতার নাম ঘোষণা করেছে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস। সম্প্রতি সিরিয়ার ইদলিবে এক মার্কিন নেতৃত্বাধীন হামলায় আগের নেতা আবু বকর আল-বাগদাদির মৃত্যুর খবর প্রকাশ পাওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় এমন ঘোষণা দিয়েছে জঙ্গি গোষ্ঠীটি। তাদের নতুন নেতার নাম আবু ইব্রাহিম আল-হাশেমি আল-কুরায়েশি।
দ্য টেলিগ্রাম অ্যাপে আপলোড করা এক ঘোষণায় বাগদাদির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে তারা। আরো জানিয়েছে, বাগদাদি মারা যাওয়ার পরদিন যুক্তরাষ্ট্র ও কুর্দিদের এক যৌথ অভিযানে নিহত হয়েছে তাদের মুখপাত্রও। গুঞ্জন ছিল যে, বাগদাদির পর তারই প্রধান নেতা হওয়ার সম্ভাবনা ছিল বেশি। নতুন এক মুখপাত্রের নামও ঘোষণা করেছে তারা। তার নাম, আবু হামজা আল -কুরায়েশি।

দলটি যুক্তরাষ্ট্রকে হুমকিও দিয়েছে।
নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, গত সপ্তাহে বাগদাদিকে হত্যার দাবি করেন ট্রাম্প। জানান, রাশিয়া, সিরীয় কুর্দি ও তুরস্কের সহায়তায় এক মার্কিন অভিযানে তার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু তার বক্তব্য নিয়ে অনেকেই সংশয় প্রকাশ করেন। কেননা, পূর্বেও বহুপক্ষ বাগদাদিকে হত্যার দাবি করেছিল। তবে অবশেষে সে সংশয় দূর করেছে আইএস নিজেই। দ্য টেলিগ্রাম অ্যাপে আপলোড করা এক অডিও রেকর্ডিংয়ের মাধ্যমে নেতার মৃত্যু নিশ্চিত করেছে দলটি। নেতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে তারা। প্রায় এক দশক ধরে আইএসের নেতৃত্ব দিয়েছেন বাগদাদি।
দলটি আরো জানিয়েছে তাদের মুখপাত্র আবু হাসান আল-মুজাহিরও সম্প্রতি এক মার্কিন নেতৃত্বাধীন অভিযানে নিহত হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা ছিল তিনিই বাগদাদির উত্তরসূরী হবেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ও মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, মার্কিন সেনারা বাগদাদিকে কোণঠাসা করে ফেললে এক সুরঙ্গে ঢুকে দুই সন্তানসহ নিজেকে উড়িয়ে দেন বাগদাদি। গত শনিবার এই ঘটনা ঘটে। এর একদিন পর সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অপর এক অভিযানে নিহত হয় মুখপাত্র আল-মুজাহির।
নতুন নেতা
আইএস তাদের ঘোষণায় জানিয়েছে, বাগদাদির উত্তরসূরী হিসেবে আবু ইব্রাহিম আল-হাশেমি আল-কুরায়েশিকে বেছে নেয়া হয়েছে। তিনিই এখন থেকে ‘বিশ্বাসীদের আমির’ ও ‘খলিফা’।
বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, আইএসের নতুন এই নেতা সম্পর্কে প্রায় কোনো তথ্যই নেই তাদের কাছে। এমনকী তার আসল নাম কী সেটাও জানা নেই। তার সত্যিকারের পরিচয় উদঘাটনের চেষ্টা চালাচ্ছে সন্ত্রাসবিরোধী বিশ্লেষকরা।
বৃহস্পতিবার এক টুইটে কমব্যাটিং টেররিজম সেন্টার এর মাসিক প্রকাশনা সিটিসি সেন্টিনেল এর সম্পাদক পল ক্রুইকশ্যাংক জানান, আইএসের অভ্যন্তরে খুব অল্প কয়েকজন ছাড়া আর কেউ তাদের নতুন নেতাকে চেনে না। দলটি এখনো ওই নেতার সত্যিকারের অর্থবহ জীবনীসংক্রান্ত কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি, যার মাধ্যমে তার পরিচয় সনাক্ত করা যায়। আইএস বিশ্লেষক ও সাংবাদিক ড্যানিয়েল রাইনেরি জানান, সাধারণত পদ পরিবর্তন হওয়ার পর নতুন নাম ধারণ করে আইএস নেতারা। মানে, আল-কুরায়েশির সত্যিকারের নাম অন্যকিছুও হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*