,

ইসলামী আন্দোলন ক্ষমতায় আসলে জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা হবে -মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম

এম.কলিম উল্লাহঃ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ৫৬ হাজার বর্গমাইলের দেশ প্রিয় মাতৃভূমিতে ১৬ কোটি মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার জন্য রাজনীতি করছে। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ক্ষমতায় গেলে জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করবে। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার জন্য মানুষকে আর কষ্ট পেতে হবেনা। স্বাধীনতা-উত্তর এদেশে যারাই ক্ষমতাসীন হয়েছে, তারা দলীয় সরকার হিসেবে দলের এজেন্ডা বাস্তবায়নকে নিজের লক্ষ্য বানিয়ে সমগ্র দেশকে শোষণ করেছে, বঞ্চনা দিয়েছে। আজকে সমগ্র দেশ যেন দুর্নীতির এক স্বর্গরাজ্য। যে যেখানে আছে শুধু লুটপাট করছে। স্বাধীনতার পর যারাই ক্ষমতায় এসেছে তারা দেশের সম্পদ লুট করেছে। আয়কর, বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল এবং খাজানা থেকে শুরু করে রাস্তার টোল পর্যন্ত শত গুণ বাড়িয়ে দিয়ে জনগণের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। জেনারেল আইয়ুব খাঁন থেকে শুরু করে হাসিনা সরকার পর্যন্ত দেশের মানুষ অনেক নেতার পরিবর্তন ঘটিয়েছে, পতাকার পরিবর্তন ঘটেছে কিন্তু মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি। সব সময় নেতার পরিবর্তন হয়েছে কিন্তু নীতির পরিবর্তন হয়নি। আর যতদিন পর্যন্ত নীতির পরিবর্তন করা যাবে না, ততদিন কোন শান্তি ও স্থায়ী সমৃদ্ধি আসতে পারে না। সেজন্য ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নেতা পরিবর্তনের রাজনীতি করে না। দেশ একটি আদর্শবান, নৈতিকতাসম্পন্ন ও খোদাভীরু নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে প্রচলিত গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার ধ্বংসস্তূপের ওপর ইসলামী শাসন প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে দেশকে একটি শান্তি, সুখ ও সমৃদ্ধশালী এবং জনগণের প্রতিনিধিত্বকারী সুশাসন মূলক শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চায়। আর এর জন্য প্রয়োজন ইসলামী শাসনব্যবস্থা। যে শাসন ব্যবস্থায় শাসক এবং শাসিতের মধ্যে একটি সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। সকল নাগরিকদের ব্যক্তিগত সম্পদের চেয়ে অধিক মূল্য হিসেবে পরিণত হবে রাষ্ট্রীয় সম্পদ।

৯ সেপ্টেম্বর ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা শাখার উদ্যোগে স্থানীয় একটি কনভেনশন হলে আয়োজিত বিশাল উলামা ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়েখে চরমোনাই বক্তব্য রাখছিলেন।

আন্দোলনের জেলা সভাপতি মাওলানা মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মাওলানা মুহাম্মদ শোয়াইবের উদ্বোধনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া সমাবেশ পরিচালনা করেন জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক রাশেদ আনোয়ার।

সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম, আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহকারী প্রচার সম্পাদক মুফতী দেলোয়ার হোসাইন সাকী, বিশিষ্ট আলোচক মাওলানা হেদায়েত উল্লাহ আজাদী, আন্দোলনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সেক্রেটারী মাওলানা মোঃ দেলোয়ার।

সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা জয়েন্ট সেক্রেটারী মাওলানা ফরিদুল আলম, ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ হোসাইন, ইসলামি শ্রমিক আন্দোলনের জেলা সভাপতি আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান, জাতীয় শিক্ষক ফোরামের জেলা সহ-সভাপতি আলহাজ্ব ডাঃ মোহাম্মদ আমীন, ইসলামী যুব আন্দোলনের জেলা সভাপতি মুফতি ওসমান আল হুমাম, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের জেলা সভাপতি মোঃ ইসমাইল জাফর। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা ও উপজেলার সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা দায়িত্বশীলদের মধ্যে মাওলানা আবুল হাশেম, মাওলানা হাফেজ মোহাম্মদ শফি, আব্দুর রউফ লাভলু, মাওলানা সেলিম উদ্দিন, মাওঃ মুহাম্মদ কামাল, মাওলানা জাহেদুর রহমান, মাওলানা ফজলুল করিম, মুফতি নুরুল্লাহ শিকদার, মাওলানা আলী আছগর, মোহাম্মদ আনোয়ার, হাফেজ মাওলানা আবু বকরও হুজ্জাতুল্লাহ মেসবাহ প্রমুখ।

মতামত...