,

টেকনাফে বস্ত্র হস্ত ও কুটির শিল্পমেলায় র‌্যাফেল ড্র’র নামে জুয়ার আসর : এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফলাফল বিপর্যয়ের সম্ভাবনা

বিশেষ প্রতিবেদক:

টেকনাফে বস্ত্র হস্ত ও কুটির শিল্পমেলায় র‌্যাফেল ড্র নামে লটারির টিকিট বিক্রির ধুম পড়েছে। পাশাপাশি চলছে মেলার নামে জুয়া খেলা । এ মেলার কারনে একদিকে কওমী মাদরাসা সমূহের বার্ষিক পরীক্ষা অপরদিকে চলতি এইচএসসি সমমান পরীক্ষার্থীদের মারাত্মক ক্ষতির ও ফলাফল বিপর্যয়ের সম্ভাবনা দেখছেন অবিভাবকরা। অন্যদিকে বেড়েছে বখাটে ও মাদক কাবারীদের উৎপাত। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত মাইকিং করে বিক্রি করছে লটারি নামক জুয়ার টিকিট। লটারিতে লোভনীয় অফারের ফাঁদে পড়ে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে উপজেলার সাধারণ মানুষ। সব কিছু জেনেও লটারি বন্ধে জেলা উপজেলা প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। জানা গেছে, চলতি মাসের ৫এপ্রিল শুরু হয় টেকনাফে বস্ত্র হস্ত ও কুটির শিল্পমেলা । প্রশাসক এই মেলার চালানোর অনুমতি দেন। এই মেলায় র‌্যাফেল ড্র’র নামে জুয়ার আসর বসিয়েছে একটি চক্র। র‌্যাফেল ড্র চালানোর শর্তে মেলা আয়োজক পক্ষের সাথে তাদের চুক্তি হয়েছে। প্রতিদিন র‌্যাফেল ড্রতে থাকছে মোটরসাইকেল, ফ্রিজ ও নগদ টাকাসহ লোভনীয় অনেক পুরস্কার। আর এই পুরস্কারের জন্য লোভের ফাঁদে পড়ে এইচএসসি পরীক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ না বুঝে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে এই র‌্যাফল ড্র’র দিকে। এ ছাড়া উপজেলার সাধারণ মানুষ কার,মাইক্রোবাস, সিএনজি, টমটম যোগে এসে ভিড় জমাচ্ছেন। চলে প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে ভোর রাত পর্যন্ত। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক অবিভাবক বলেন, এই মেলা চলতি এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মারাত্মক ক্ষতি করবে। অনেক পরীক্ষার্থী মেলায় চলা মাইক ও প্রচারণার কারনে উচ্চ শব্দে লেখাপড়া করতে পাছেনা। অনেকে সন্ধ্যার পর পরিবারের লোকদের ফাঁকি দিয়ে মেলায় গিয়ে লটারি, জুয়া, সার্কাস ও নাচ গাণ দেখতে যাচ্ছে। এ অবস্থায় স্থানিয়রা মেলা বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান কে অভিযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি। মেলার নামে অবৈধ লটারি, মদজুয়ার আসর ব›েধ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। টেকনাফ বড় মাদরাসার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস, দৈনিক সাগরদেশ পত্রিকার সম্পাদক, প্রকাশক মুফতি কেফায়ত উল্লাহ শফিক অনতিবিলম্বে শিল্প ও বাণিজ্য মেলার নামে কুপন বিক্রিসহ অবৈধ জুয়া খেলা বন্ধের দাবী জানিয়ে বলেন, সমাজ, ধর্ম ও নৈতিকতা বিরোধী অবৈধ এই সব কর্মকান্ড কিছুতেই চলতে পারেনা। তিনি অনতিবিলম্বে ওইসব কর্মকান্ড বন্ধ রাখার আহবান জানান।##

মতামত...