,

সাবরাংয়ে নৌকার প্রতীকের জনসভায় আব্দুর রহমান বদি : টেকনাফবাসীর দুঃখ মুছতে অধ্যাপক মোঃ আলীকে বিজয়ীর বিকল্প নেই

নিজস্ব প্রতিনিধি ::

টেকনাফ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাবরাং বাজারে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে আয়োজিত জনসভায় সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি বলেছেন, একটি চক্র টেকনাফবাসীর কপালে দুঃখ লেপন করে দিয়েছে ; সেই কলংক মুঁছে সামনে এগিয়ে যেতে চাইলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীকে বিজয়ী করার বিকল্প নেই।

১৮ মার্চ বিকাল ৪টায় সাবরাং বাজারে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী জনসভা উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল গণির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা যুবলীগের ক্রীড়া সম্পাদক নুরুল আমিনের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সাংসদ আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদি। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আনোয়ার মিয়া,হ্নীলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচকে আনোয়ার, শাহপরীর দ্বীপ সাংগঠনিক ইউনিট আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সোনা আলী, আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক ওসি আব্দু রহমান।

এছাড়া উক্ত সভায় উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন,উপজেলা ওলামা লীগ সভাপতি মাও ক্বারী ফরিদুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্নসাধারণ সম্পাদক সেলিম সিকদার, হ্নীলা ইউপির ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার হোছাইন আহমদ, পৌর কমিশনার মোঃ হারেজ, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলম বাহাদুর, হোয়াইক্যং ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ফরিদুল আলম জুয়েল, হোয়াইক্যং ইউপি মেম্বার আব্দুল গাফ্ফার মেম্বার, শাহ আলম মেম্বার, গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, নজির আহমদ সীমান্ত, এজাহার মিয়া, টেকনাফের সাবেক পৌর কশিনার মোঃ কালু, মহিলা পৌর কাউন্সিলর কহিনুর আক্তার, হ্নীলা ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান আবুল হোসেন, বশির আহমদ মেম্বার, হ্নীলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিকদার।

সাবেক সাংসদ আব্দুর রহমান বদি বলেন, কিছু দূর্নীতিবাজ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতা ও সাংবাদিক মিলে টেকনাফবাসীর স্বপ্ন ভেঙ্গে দিয়েছে। আমি নিরপরাধ আব্দুর রহমান বদির শরীরে ইয়াবার কলংক লেপন করে এই দেশের আপামর জনসাধারণের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। একটি কুচক্রীমহল আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব শূন্য করার জন্য মাদক তালিকার আশ্রয় নিয়েছে। এই মাদক তালিকার সুত্রধরে অঘোষিত বাণিজ্য চলছে। সুতরাং মাদক চোরাচালান এবং অঘোষিত বাণিজ্য বন্ধ করতে হলে অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর মতো যোগ্য প্রার্থীর দরকার। এখনো যেসব ইয়াবা কারবারী রয়েছেন আপনারা দ্রæত আইনের নিকট আতœসমর্পণ করুন। অন্যথায় কেউ পালানোর পথ খুঁজে পাবেন না। স্ব স্ব এলাকার জনপ্রতিনিধিদের মাদক প্রতিরোধে এগিয়ে আসার আহবান জানান। এক পর্যায়ে তিনি আরো বলেন, অনেকে আমাদের হাইব্রীড আওয়ামী লীগ হিসেবে আখ্যায়িত করত। যারা স্বাধীনতা ও উন্নয়ন এবং বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীকের সাথে বেঈমানী করবে তারাই প্রকৃত হাইব্রীড বলে মন্তব্য করেন।

এদিকে চলতি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা টেকনাফবাসীর সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীকে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দিয়েছেন বলে জানান। যাতে আপনাদের অধিকার আদায় করতে পারেন। তাই আমি আশা করব আমি ২৪ মার্চ নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সম্মান রক্ষা করবেন। আমি বাঁচলেও নৌকা নিয়ে আছি আর মরলেও নৌকা নিয়ে মরব ইনশল্লাহ। আমি সাবরাং-শাহপরীর দ্বীপসহ পুরো উপজেলা বাসীকে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সম্মান রক্ষার জন্য স্বনিবয় অনুরোধ জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*