,

একবার সুযোগ দিন, শিক্ষা, মাদকমুক্ত টেকনাফ, রাস্তাঘাট উন্নয়নে ভূমিকা রাখব… সাংবাদিক জাবেদ ইকবাল চৌধুরী

আমান উল্লাহ কবির, টেকনাফ ::

আসন্ন টেকনাফ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইচ চেয়ারম্যান প্রার্থী জাবেদ ইকবাল চৌধুরী সাধারণ ভোটারদের আশ্বস্ত করে বলেন, আপনাদের আমানত কোনদিন খেয়ানত হতে দেবো না। নির্বাচিত হলে আপনাদের এই আমানতকে যথাযথ মূল্যায়ন করব। আপদের কথা উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে জানাব এবং শিক্ষা, মাদকমুক্ত টেকনাফ এবং রাস্তাঘাট উন্নয়নে যথেষ্ট ভূমিকা রাখব।

টেকনাফের প্রত্যন্ত অঞ্চলের গণসংযোগকালে জাবেদ ইকবাল চৌধুরীর উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

এদিকে আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে টেকনাফে বইছে ভোটের হাওয়া। এবার টেকনাফ উপজেলায় নতুন প্রজন্মের অনেক তরুণ ভোটার।

একটি পৌরসভা ও ৬ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত টেকনাফ উপজেলা । যার পরিচিতি পর্যটন ও সীমান্ত জনপদ হিসেবে।

আগামী ২৪ মার্চ টেকনাফ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে জাবেদ ইকবাল চৌধুরী পালকি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

বড় রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ভোটের মাঠে। বড় অপর দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) ভোটের মাঠে নেই। তাই বিএনপির কোন প্রার্থীও নেই। ফলে বিএনপি ঘরনার অনেকের ভোট শুধু জাবেদ ইকবালের পক্ষে যেতে পারে এমনও ধারনা করছেন অনেকে।

অপরদিকে ভোটের রেশ আছে প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনপদেও। তাতে এবার বেশ উৎসুক নতুন ভোটাররা। তাদের আলোচনায় যেমন উঠে আসছে কেমন প্রার্থী চায়, তেমনি আছে যোগ্যতা ও পছন্দেরও।

এবার পছন্দের তালিকায় রয়েছে টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও টেকনাফ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী সাংবাদিক জাবেদ ইকবাল চৌধুরী। তিনি পালকি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।
সাধারন ভোটারদের মতে, অনেক প্রার্থী ভোটের সময় দেখা গেলেও ভোট শেষ হওয়ার পর স্বপ্নেও দেখা মেলে না। কিন্তু এই জাবেদ ইকবাল চৌধুরী কে সময়ে অসময়ে- সব সময় দেখা যায়। তার সাথে কথা বলতে কারো কাছে ধর্ণার প্রয়োজন হয় না। তিনি একজন সাধারণ মানুষ।  তিনি নির্বাচিত হলে সাধারণ মানুষের কথা সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে তুলে ধরতে পারবেন। তিনি একজন শিক্ষিত এমএ পাস ব্যাক্তি। তার কোনো লোভ নেই। বিগত ১০/১২ বছর ধরে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেও তার কোন অট্টালিকা, ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স নেই। তিনি একজন নির্লোভ মানুষ। জনগণের কাতারে থাকতে তিনি ভালোবাসেন। তাই ভোটাররা এবার পালকি মার্কায় ভোট দিয়ে তাকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে উপজেলা পরিষদের দেখতে চাই। সাধারণ ভোটাররা অধীর আগ্রহে আছেন আগামী ২৪ মার্চ তাকে পালকি মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য।

এছাড়া ভোট চেয়ে জাবেদ ইকবাল চৌধুরী টেকনাফের প্রত্যন্ত অঞ্চলের মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। যেখানে যাচ্ছেন সাধারণ ভোটারদের প্রচুর সাড়া পাচ্ছেন। আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা তাকে জড়িয়ে ধরেন এবং ভোট দেওয়ার ওয়াদা করছেন। এসময় জাবেদ ইকবাল চৌধুরী সাধারণ ভোটারদের আশ্বস্ত করে বলেন, তাদের আমানত কোনদিন খেয়ানত হতে দেবেন না। তিনি নির্বাচিত হলে তাদের এই আমানতকে যথাযথ মূল্যায়ন করবেন। তাদের কথা উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে জানাবেন এবং শিক্ষা, মাদকমুক্ত টেকনাফ এবং রাস্তাঘাট উন্নয়নে যথেষ্ট ভূমিকা রাখবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

মতামত...