,

পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে মহেষখালিয়া পাড়ার আবদুর রহমান নিহত

মুহাম্মদ জুবাইর::

টেকনাফে পুলিশের মাদক বিরোধী চলমান যুদ্ধ এখনো অব্যাহত রয়েছে।

১১ মার্চ গভীর রাতে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক পাচারকারী নিহত হয়েছে।

হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মহেষখালিয়া পাড়ার আবদুর রহমান ৷

ঘটনাস্থলে তল্লাশী করে ৩ হাজার ইয়াবা,১টি দেশীয় তৈরী এলজি,৩ রাউন্ড তাজা কার্তুজ,৬ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সুত্রে জানা যায়,১১ মার্চ গভীর রাত ১টা ৫০ মিনিটের সময় হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সাতঘরিয়া পাড়া শিয়াইল্লা পাহাড় সংলগ্ন এলাকায় মাদক পাচারে জড়িত অপরাধী চক্রের সাথে এ ঘটনা ঘটে৷

জানা যায়, নিহত মাদক পাচারকারী টেকনাফ উপজেলা হোয়াইক্যং ইউনিয়ন মহেশখালীয়া পাড়া এলাকার শাহ আলমের পুত্র ৷ নিহতের লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তেের জন্য কক্সবাজার মর্গে প্রেরন করেছে।

এই অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে পুলিশ সদস্যরা অভিযানে গেলে মাদক কারবারী পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষন করে পুলিশ সদস্যরাও আত্বরক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে এতে এক মাদক পাচারকারী গুলিবিদ্ধ হয়। এরপর গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে।

ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ৩ হাজার ইয়াবা,১টি দেশীয় তৈরী এলজি,৩রাউন্ড তাজা কার্তুজ,৬ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন মাদক কারবারে জড়িত অপরাধীদের নিশ্চিহ্ন করার জন্য টেকনাফ থানা পুলিশের মাদক বিরোধী চলমান যুদ্ধ অব্যাহত থাকবে।

পাশাপাশি ভদ্রতার মুখোশ পড়ে আড়ালে থেকে যারা এখনো মাদক পাচারে লিপ্ত রয়েছে সেই সমস্ত অপরাধীদের আইনের আওয়াতাই নিয়ে আসতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

মতামত...