,

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে দুই কিশোরীর আত্মহত্যা

ডেস্ক নিউজ ::

প্রেমে ব্যর্থতার কারনে চট্টগ্রাম মহানগরীতে দুই দিনে দুই কিশোরীর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে একজন পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী জেয়াসমিন আক্তার (১৩)। অপরজন নাজমিন আক্তার (১৫)। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে নগরীর খুলশী থানার আমবাগান ফ্লোরাপাস রোড এলাকায় নিজ বাসায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে নাজমিন। সে কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার নালঘর দাশবাড়ির আব্দুস ছাত্তারের মেয়ে।

খুলশী থানার ডিউটি অফিসার এএসআই আমির হোসেন জানান, বাড়ির সকলের অজান্তে ঘরের মধ্যে দরজা দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে নাজমিন। পরে বাড়ির লোকজন কয়েকবার ডাকার পরেও দরজা না খোলায় একপর্যায়ে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকলে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই দেলোয়ার হোসেন জানান, রাত সাড়ে এগারোটার দিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাই।

পরে তার মরাদেহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক মর্গে পাঠানো হয়।  

তিনি আরও বলেন, কি কারণে আত্মহত্যা করেছেন এখনো তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্ত শেষে আপনাদের জানাতে পারবো। তবে ধারণা করা হচ্ছে প্রেমে ব্যর্থতার কারনে নাজমিন আত্মহত্যা করেছে। 
এদিকে নগরীর পাঁচলাইশ থানার আতুরার ডিপো এলাকার হাজী মুহাম্মদ আলীর কলোনিতে বৃহ¯পতিবার রাতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী জেয়াসমিন আক্তার আত্মহত্যা করে। সে লক্ষীপুর জেলার কমলনগর থানার চরপাগলার মোহাম্মদ হারুনের মেয়ে। নিহতের মা লাকী আক্তার বলেন, হামিদ নামের বেকারির এক কর্মচারী সাথে প্রেম ছিল জেয়াসমিনের। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে বাসায় আত্মহত্যা করে সে। বিষয়টি নিশ্চিত করেন চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক আমির হোসেন বলেন, আতুরার ডিপো এলাকার পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী গলায় ফাঁস দেয়। এ অবস্থায় চমেক হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

মতামত...