,

৯ মাসে কোরআন হেফজ করলো টেকনাফের রোকাইয়া


মুহাম্মদ জুবাইর,টেকনাফ ::
মাত্র নয় মাসে সম্পূর্ণ পবিত্র কোরআন হেফজ সম্পন্ন করে সবাইকে বিস্মিত করে দিয়েছেন টেকনাফে প্রবাসীর এক শিশু কন্যা। রোকাইয়া বেগম নামে ওই শিশু টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের কচ্চপিয়া এলাকার বাসিন্দা, সৌদিপ্রবাসী হাফেজ নুর মুহাম্মদের কন্যা রোকাইয়া বেগম (১২)। তার এমন কীর্তি নিয়ে ইতিমধ্যে এলাকায় প্রশংসার ঝড় উঠেছে।
কচ্চপিয়া উম্মুল হুদা আল ইসলামিয়া নুরানী মাদরাসায় নুরানী শিক্ষা সম্পন্ন করে, ভর্তি হয় দক্ষিন কচ্চপিয়া তাওহিদিয়া হেফজখানায় । সেখানে মাত্র ৯মাসে হেফজ সম্পন্ন করে।
হাফেজ নুর মুহাম্মদ’র ৪সন্তানের মধ্যে রোকাইয়া সর্বককনিষ্ঠ । তারা এক ভাই তিন বোন। বড় ভাই মো. শহিদ নূর কক্সবাজার সিটি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগ( ম্যানেজমন্টে) এর দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র, বড় বোন মুরশিদা বেগম ও মেঝ বোন মুরদিয়া বেগম লম্বরী মল্কা বানু জুনিয়র হাই স্কুল এর ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী।
হাফেজা রোকাইয়া আক্তার অনূভুতি প্রকাশ করে বলেন, কোরআন মুখস্থ করতে পেরে খুবই আনন্দিত আমি । ভবিষ্যতে আলেম হয়ে কোরআনের শিক্ষক ও গবেষক হওয়ার প্রবল ইচ্ছা রয়েছে।
রোকাইয়ার মা সমজিদা বেগম বলেন, আমি মহান আল্লাহ’র দরবারে শুকরিয়া আদায় করছি যে, অসংখ্য শিশু কন্যার মধ্যে আমার মেয়েকে হাফেজা হওয়ার তাওফিক দান করেছেন। আমার মেয়ে রোকাইয়া বেগম হাফেজা হয়ে আমার পরিবারকে গর্বিত করেছে। এখন থেকে আমি হাফেজা রোকাইয়ার আম্মু। যা আমি মাতা উঁচু করে বলতে পারি। জীবনে এরচেয়ে বেশী কিছু পাওয়ার আশা আর নেই। কিযে আনন্দ লাগছে তা বলেই শেষ করা যাবেনা।
দক্ষিন কচ্চপিয়া তাওহিদিয়া হেফজখানা’র শিক্ষক হাফেজ জামালা উদ্দীন বলেন, রোকাইয়া বেগম নামের এক ছাত্রী অত্র হেফজখানা থেকে মাত্র ৯মাসে হেফজ সম্পন্ন করেছে। তাঁর নিকট সে নাজেরাও সম্পন্ন করেছেন। যা বর্তমান সমাজে এক বিরল দৃষ্টান্ত । হাফেজ জামাল আরো বলেন সে এক মেধাবী ছাত্রী, আমি তার ভবিষ্যত জীবনের উজ্জলতা কামনা করছি।

মতামত...