,

সাগর পথে মালয়েশিয়া যাত্রা কালে ৬ রোহিঙ্গাসহ ৫ দালাল আটক

মুহাম্মদ জুবাইর,টেকনাফ:

টেকনাফ থেকে সাগর দিয়ে চোরাইপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্ততিকালে বিজিবি অভিযান চালিয়ে ৬ জন মিয়ানমার নাগরিক রোহিঙ্গা এবং সন্দেহভাজন ৫ জন দালালকে আটক করেছেন বলে জানা গেছে। আটককৃত রোহিঙ্গাদের মাঝে ৪ জন পুরুষ এবং ২ জন নারী। দালাল ৫ জনই পুরুষ। আটককৃত সন্দেহভাজন দালালরা হলেন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেশখালীপাড়া বশির আহমদের পুত্র মোঃ মনির (২৭), দালাল ও নৌকার মালিক মোঃ নুরুল আবছার (৩৫), শাহপরীরদ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ওলি আহমদের পুত্র দালাল ও নৌকার মালিক মোঃ ইউনুস (৩২), শাহপরীরদ্বীপ দক্ষিণপাড়া মৃত নজির আহমদের পুত্র মোঃ আমিন (৪৯), টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মাঠপাড়ার মোঃ এখলাস মিয়ার পুত্র দালাল, আশ্রয়দাতা ও নৌকার মালিক মোঃ মুন্না (৩৫)।
টেকনাফ-২ বিজিবির পরিচালক অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ আছাদুদ-জামান চৌধুরী অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,
‘গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানা যায় দুইটি মানব পাচার চক্র ১২ ফেব্রæয়ারি দিবাগত গভীর রাতে অন্ধকারে বাংলাদেশে বসবাসকারী কিছু রোহিঙ্গা নাগরিক অবৈধভাবে মালয়েশিয়া সাগরপথে পাচার করার জন্য টেকনাফস্থ খুরেরমুখ অস্থায়ী চেকপোষ্টের আওতাধীন মহেশখালীপাড়া এবং মাঠপাড়া এলাকায় জমায়েত করা হয়েছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ খুরেরমুখ অস্থায়ী চেকপোষ্ট হতে হাবিলদার মোঃ তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টহল দল মহেশখালীপাড়ায় এবং ব্যাটালিয়ন সদরের একটি টহল দল মাঠপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানে ১২ ফেব্রæয়ারী ভোরে টেকনাফস্থ মহেশখালীপাড়া এলাকায় টহল দল পৌছে দেখতে পায় ১ জন দালাল ও ৪ জন পুরুষ রোহিঙ্গা নাগরিক সাগর পাড়ে নৌকার অপেক্ষায় জড়ো হয়ে আছে। উক্ত সময়ে টহল দল তাদেরকে ঘেরাও করতঃ আটক করে। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর নৌকাটি সাগর পাড়ে আসলে টহল দল নৌকাটি জব্দ করে এবং নৌকার মাঝিকে আটক করে। এছাড়া ব্যাটালিয়ন সদরের টহল দল সকাল সাড়ে ৭টায় মাঠপাড়া এলাকায় মোঃ এখলাস মিয়ার পুত্র মোঃ মুন্নার বাড়ীতে একসাথে ৩ জন দালাল (মুন্নাসহ) ও ২ জন মহিলা রোহিঙ্গা নাগরিককে নৌকার জন্য অপেক্ষমান অবস্থায় আটক করতে সক্ষম হয়। মোট দালাল আটক ৫ জন পুরুষ, অবৈধভাবে মালয়েশিয়াগামী রোহিঙ্গা নাগরিক উদ্ধার ৬ জন। তম্মধ্যে পুরুষ ৪ জন, মহিলা২ জন। উল্লেখিত রোহিঙ্গা নাগরিকদের জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে জানা যায় তারা টেকনাফ ও উখিয়ার বিভিন্ন রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে বসবাস করে এবং দালালদেরকে মোটা অংকের টাকা দিয়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় গমন করছিল। আটককৃত সন্দেহভাজন দালালদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে মানব পাচার চক্রের সাথে জড়িত অন্যান্য সক্রিয় দালালদেরকে আটক করার ব্যাপারে অভিযান চলমান রয়েছে। আটককৃত সন্দেহভাজন দালালরা হলেন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেশখালীপাড়া বশির আহমদের পুত্র মোঃ মনির (২৭), দালাল ও নৌকার মালিক মোঃ নুরুল আবছার (৩৫), শাহপরীরদ্বীপ মিস্ত্রিপাড়া ওলি আহমদের পুত্র দালাল ও নৌকার মালিক মোঃ ইউনুস (৩২), শাহপরীরদ্বীপ দক্ষিণপাড়া মৃত নজির আহমদের পুত্র মোঃ আমিন (৪৯), টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মাঠপাড়ার মোঃ এখলাস মিয়ার পুত্র দালাল, আশ্রয়দাতা ও নৌকার মালিক মোঃ মুন্না (৩৫)। মানব পাচারের সাথে জড়িত সন্দেহভাজন দালালদের জিজ্ঞাসাবাদ অব্যাহত আছে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে’। ##

মতামত...