,

জন্মই যেন আজন্ম পাপ! নতুন প্রজন্মই পারবে সুশিক্ষিত হয়ে বদনাম গোছাতে প্রসঙ্গ:টেকনাফ

ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতিমনা স্বনামধন্য টেকনাফের সুনাম আজ আর নেই। যদিও পর্যটক নগরী। একপাশে বিশাল পর্বতমালা, অন্যপাশে নাফনদী। নাইট্যং পাহাড় ঘেঁষে ঝর্ণা, পশ্চিমে বঙ্গোপসাগর। চারদিরে সবুজের সমারোহ! কি রোমান্টিক এই প্রকৃতি দেখতে!

সুন্দর মায়াভরা প্রকৃতির গ্রামগঞ্জের বিলেভরা ধান, ধান ক্ষেত ভরা কই, পুঁটি, টাকি, টেংরা আরো কত প্রজাতির ছোট ছোট সুস্বাদু মাছ। গ্রামের উঠতি বয়সের ছেলেমেয়েদের এই মাছ ধরার দৃশ্য যেন সত্যিই প্রকৃতির নিদারুন একটি অংশবিশেষ। আজ আর নেই সেই দৃশ্য!

আধুনিকতার ছোঁয়ায় হয়তো পর্যটকদের খালি চোখে পর্যটক নগরী হলেও স্থানীয় সচেতন মহলের জন্য নিরক্ষর মানুষের বেপরোয়া পথচলার কারণে পুরো শহরটাই অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেছে। বৃক্ষ শূন্য পাহাড়-পর্বত, সড়কে বেপরোয়া যানচলাচল, নিরক্ষরতা, অপ্রীতিকর রোহিঙ্গাদের অস্বাস্থ্যকর বসবাস, পরিবেশ ধ্বংসের বিপর্যয়সহ নানাবিধ সমস্যা।

তাছাড়া, টেকনাফে রয়েছে ব্যবসায়-বাণিজ্যের স্থলবন্দর। দশক দুই পূর্বে যে টেকনাফ নগরী বাণিজ্যিক নগর হিসেবে দেশে মাথা উঁচু করে দাড়িঁয়ে ছিল, চোরাচালান কারবারিরা তা ধ্বংসের পথে ঠেলে দিয়ে টেকনাফকে মাদকের স্বর্গ রাজ্যে পরিণত করে দিয়েছে। নতুন প্রযন্মের এখন জন্মই হয়ে ওঠেছে আজন্মকাল পাপ!

টেকনাফ থানা কতৃক আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে কক্সবাজার জেলা সহকারি পুলিশ (এএসপি) ইকবাল হোসেন বলেন, স্বনামধন্য টেকনাফের কোন ছাত্র যদি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠানে পড়ালেখা করার সুযোগও যদি হয়, বন্ধু-বান্ধব মিলে যদি কোন একসময় চা আড্ডা হয় আর তখন যদি বান্ধবী জানতে পারে পড়ুয়া ছেলেটি টেকনাফের। তখন যতই ভাল ছাত্র হোক, নিশ্চয় টেকনাফের ছেলে হওয়ার কারণে বান্ধবী সেই বন্ধুর সান্নিধ্যে আর থাকবে না, প্রেম-ভালবাসা তো দূরের কথা। জেলা পুলিশের এমন বক্তব্যে বুঝা যায়, নিঃসন্দেহে টেকনাফ আগেকার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সুনাম হারিয়ে দুর্নামে পৌঁছে গেছে।

দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাংগঠনিক ভ্রমন (সরেজমিন) করে বুঝা যায়, গাড়ির যাত্রী হওয়া থেকে শুরু করে কোন দলের প্রতিনিধি হওয়া পর্যন্ত ব্যাক্তিটি যদি টেকনাফের পরিচয় দেয়, তখন শুরু হয়ে যায় মৃত ব্যাক্তিকে আসামি করে নিয়ে আসার মতো অপ্রীতিকর ঘটনা। আর কি বলবো!

কক্সবাজার জেলা সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) ড.ইকবাল হোসেন একটি অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে বলেছিলেন, পুলিশ কতৃক বিশাল কোন সভা/সমাবেশে কক্সবাজারের এসপি হিসেবে পরিচয় দিতে গিয়ে অনেকসময় লজ্জিত হতে হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এই পরিচয় দিতে গিয়ে অন্যরা হাসে। তিনি আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, এই কক্সবাজার জেলার দূর্নাম মুছতে হবে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সকল প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণ করতে হবে।

টেকনাফ থানা কতৃক আয়োজিত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বরণ অনুষ্ঠানে বর্তমান কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মাসুদ হোসেন উপস্থিত সুধীর উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, আপনারা নিজ ঘরে ঘরে এক একজন পুলিশ অফিসার হয়ে যান। মাদক/দুর্নিতি এমনিতে আর থাকবে না।

ব্যাক্তিগতভাবে নতুন প্রজন্মের প্রতি অনুরোধ এবং উপদেশ, মনুষ্যত্ব অর্জন ব্যাতিত মানুষ হওয়া যায় না। সাহিত্যের রস ব্যাতিত মস্তিষ্কে জ্ঞানের আলো পৌছাঁবে না। তাই বিভিন্ন সাহিত্যিক, দার্শনিক, কবি, কলামিস্ট এর জীবনী পড়ে অনুধাবন করতে হবে, সুন্দরভাবে বেচে থাকার সঠিক পথ বাছাই করতে হবে। ধর্মীয় বই-পুস্তক বেশী বেশী পড়তে হবে। দৈনিক পত্রিকা পড়া বাধ্যতামূলক। ভাল কাজ অবলম্বন, খারাপ দিক বর্জন করার মানসিকতা তৈরী করতে হবে। সুতরাং নতুন প্রজন্মই পারবে একমাত্র স্বনামধন্য পর্যটক নগরী টেকনাফের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে।

আমি ২০১০ সালে এসএসসি পাশ করি, এইসএসসি ২০১২ সালে। তারপর সংসারের দুরবস্থা দেখে প্রবাসী হয়ে গেলাম। কিন্ডারগার্টেনে পড়ালেখা করেছিলাম। একাডেমিক জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি সাহিত্যের প্রতি ছিল অত্যন্ত আকর্ষিক। বিদেশ থেকেই ২০১৬ সালে বাংলা মায়ের কোলে আবারও দেশে আসা। দেশের চারপাশে ভয়াবহ পরিস্থিতি মোকাবেলার হাতিয়াত হিসেবে বেছে নেয়া হল কলম। এরপর থেকেই লেখালেখির কারণে সাংবাদিকতা করার জন্য সংবাদকর্মীদের অদ্ভুদ্ধের কারণে সাংবাদিক পেশা…🖋 এবং একাডেমিকভাবে ফের লেখাপড়া শুরু করেছি।

লেখক:

হাবিবুল ইসলাম হাবিব।

মতামত...