,

টেকনাফ সরকারী ডিগ্রী কলেজে এমপি বদির সংবর্ধনা : ছাত্রলীগের বয়কট ও বিক্ষোভ মিছিল

হূমায়ুন রশিদ::

টেকনাফ ডিগ্রী কলেজ সরকারী হওয়ায় আনন্দ অনুষ্ঠান ও সরকার দলীয় এমপি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান বদির নান্দনিক সংবর্ধনা স্থলে জামায়াত-বিএনপি এবং হাইব্রীড নেতাদের সংবর্ধনার প্রতিবাদে কলেজ ছাত্রলীগের বয়কট ও বিক্ষোভ মিছিলের ঘটনায় রাজনৈতিক সচেতনমহলসহ সর্বস্তরে ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
জানা যায়,৮ অক্টোবর সকাল ১১টায় টেকনাফ সরকারী ডিগ্রী কলেজ মাঠে স্থানীয় দলীয় সাংসদ আব্দুর রহমান বদির নান্দনিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শেখ জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে সংবর্ধিত ও প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ আলহাজ¦ আব্দুর রহমান বদি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আছাদুদ জামান চৌধুরী, জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ¦ সফিক মিয়া, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) প্রণয় চাকমা, টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ রনজিৎ কুমার বড়ুয়া, টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলম বাহাদুর।
কলেজের অধ্যাপক সন্তোষ কুমার শীল ও পারিয়েল সামিহার যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভার শুরুতে জননেত্রী শেখ হাসিনার একমাত্র নির্বাচিত প্রতিনিধি আলহাজ¦ আব্দুর রহমান বদিকে ফুলেল শুভেচ্ছায় বরণ করে নেন কলেজ শিক্ষার্থীরা। উক্ত সংবর্ধনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রভাষক আবু তাহের। এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে অবসর প্রাপ্ত ওসি আব্দুর রহমান, জহির হোসেন এমএ, টেকনাফ পৌর প্যানেল মেয়র আব্দুল্লাহ মনির, হোয়াইক্যং ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ নুর আহমদ আনোয়ারী, হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান এইচকে আনোয়ার (সিআইপি), টেকনাফ সদর ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়া, বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মৌঃ আজিজ উদ্দিন ও সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ, রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাজীবিসহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উক্ত অনুষ্ঠান চলাকালে টেকনাফ সরকারী ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল পারভেজ রিপনের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ উক্ত অনুষ্ঠানে বিএনপি-জামায়াত ও হাইব্রীডদের সংবর্ধনার প্রতিবাদে সভা বয়কট করে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। উক্ত বিক্ষোভ মিছিলটি পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।
এদিকে দুপুরে নান্দনিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে প্রীতিভোজের পর বিকালে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়ে বিকালে শেষ হয়।
এই ব্যাপারে টেকনাফ সরকারী ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শেখ জয়নাল আবেদীন জানান, এই কলেজটি এই জনপদের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ। জননেত্রী শেখ হাসিনার এত বড় উপহার আমরা সার্বজনীনভাবে উদযাপনের উদ্যোগ নিই। তাই তাঁরই নির্বাচিত প্রতিনিধিকে সংবর্ধনা দিয়ে সম্মানিত করতে এই নান্দনিক আয়োজন। এতে সকল রাজনৈতিক দল, বিশিষ্ট ব্যক্তি, সমাজ সেবক ও উপজেলার সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়।
এই ব্যাপারে টেকনাফ ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম জানান, অত্র কলেজ প্রতিষ্ঠার পর হতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগই যাবতীয় কার্য্যক্রমে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় এই ডিগ্রী কলেজ সরকারী হয়েছে। সরকারী দলের এমপির সংবর্ধনা সভায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা উপেক্ষিত থাকবে তা মেনে নেওয়া যায় না। আমাদের মধ্যে কোন গ্রুপিং নেই, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার নৌকা যেখানে দলমত নির্বিশেষে আমরা সবাই সেখানে। আর কলেজ প্রশাসনের কতিপয় বিএনপি-জামায়াতের প্রেতাত্নারা কৌশলে বিএনপি-জামায়াতের নেতা ও হাইব্রীডদের ফুলের তোড়া দিয়ে সংবর্ধিত করে ছাত্রদল-শিবিরের কার্য্যক্রম চালানোর সুযোগ করে দেওয়ার পায়তাঁরার প্রতিবাদে আমরা উক্ত অনুষ্ঠান বয়কট করে বিক্ষোভের আশ্রয় নিই।
এদিকে হঠাৎ করে সরকার দলীয় স্থানীয় সাংসদ আলহাজ¦ আব্দুর রহমান বদির নান্দনিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান বয়কট করে কলেজ ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা করার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড়ের সৃষ্টি হওয়ায় উখিয়া-টেকনাফসহ পুরো জেলার মানুষের মধ্যে নানা ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা গেছে

মতামত...