,

চট্টগ্রামে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ ছিন্নভিন্ন দুই লাশ, অস্ত্র ও গ্রেনেড উদ্ধার

ডেস্ক নিউজ:


চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জোরারগঞ্জের সোনা পাহাড় গ্রামের ‘চৌধুরী ম্যানসন’ নামের বাড়িতে গড়ে ওঠা জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) ‘জঙ্গি আস্তানা’ থেকে দুইজনের ছিন্নভিন্ন মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া অভিযান শেষে একে-২২ রাইফেলসহ তিনটি পিস্তল ও পাঁচটি গ্রেনেড উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

শুক্রবার (৫ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, বেলা সোয়া ১১টার দিকে র্যাবের বোম ডিসপোজাল ইউনিট বাড়িটির ভেতর থেকে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে। নিহতরা জামায়াতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য। মরদেহ দুটি ছিল ছিন্নভিন্ন। এ ছাড়া চার কক্ষের ওই বাড়িতে তল্লাসি করে একটি একে-২২ রাইফেল, তিনটি পিস্তল ও পাঁচটি গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বোম ডিসপোজাল ইউনিট কাজ শুরু করার পর বাড়ির বাইরে বেশ কয়েকটি তাজা বোমা নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সকালে র‌্যাব-৭ এর উপ-অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার সাফায়াত জামিল ফাহিম জাগো নিউজকে বলেছিলেন, কয়েকদিন আগে ‘জঙ্গি’ সদস্যরা এ বাড়িটি ভাড়া নিয়েছে -এমন তথ্য আমাদের কাছে আসে। র‌্যাব জানতে পারে, চট্টগ্রামে বড় ধরনের জঙ্গি হামলার লক্ষ্যে একজন নারীসহ অন্তত চার সদস্যের একটি দল এ বাড়িটি ভাড়া নিয়েছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোররাত তিনটার দিকে ‘চৌধুরী ম্যানসন’ নামের একটি একতলা বাড়িতে অভিযান শুরু করা হয়।

তিনি আরও জানান, অভিযানের শুরুতে রাত সাড়ে তিনটার দিকে প্রথমেই বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। এ সময় র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে বাড়ির ভেতর থেকে গুলি ছোড়ে জঙ্গিরা। জবাবে র‌্যাবও গুলি ছুড়ে। পরে রাত চারটার দিকে বাড়ির ভেতরে বিকট শব্দে তিন-চারটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এতে বাড়িটির ছাদের একটি বড় অংশ উড়ে গিয়ে প্রায় ৩০ গজ দূরে পরে।

বাড়িটিতে শক্তিশালী বোমা ও অস্ত্র মজুদ থাকতে পারে ধারণা করে ঢাকা থেকে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে চট্টগ্রাম নেয়া হলে সকালে আবারও অভিযান শুরু করে র‌্যাব।

জানা গেছে, ‘চৌধুরী ম্যানসন’ নামের ‘জঙ্গি আস্তানা’র এ বাড়িটির মালিকের নাম মাজহারুল হক। বাড়ির মালিক কোনো কাগজপত্র বা জাতীয় পরিচয়পত্র জমা না নিয়েই গত ২৯ সেপ্টেম্বর সোহেল নামের এক ব্যক্তির কাছে ভাড়া দেন। এলাকার মানুষ জানতো বাড়িটিতে একজন অসুস্থ মহিলা থাকেন।

অভিযানের সময় বাড়ি কেয়ারটেকারকে আটক করেছে র‌্যাব সদস্যরা। তবে তার তার নাম জানা যায়নি।

মতামত...