,

নিখোঁজ ইউএনএইচসিআর’র কর্মকর্তার লাশ বঙ্গোপসাগর থেকেউদ্ধার

কক্সবাজারে নিখোঁজের ৪দিন পরে জাতিসংঘের কর্মকর্তা ইথোপিয়ার নাগরিক সোলিমান মুলাটার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গোপসাগরের সোনাদিয়া চ্যানেল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোলিমান মুলাটার মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোলিমান মুলাটা জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর’র সুরক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন।তিনি কক্সবাজারের কলাতলিতে একটি আবাসিক হোটেলে থাকতেন।

গত ৩০ জুলাই তিনি নিখোঁজ হন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অফরুজুল হক টুটুল জানিয়েছেন, মহেশখালীর সোনাদিয়ার পূর্বপাড়া সাগর পয়েন্টে জেলেদের জালে একটি লাশ আটকা পড়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে চরে আটকা পড়া লাশটি জেলেরা উদ্ধার করে কূলে নিয়ে আসেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলের পৌঁছে। মরদেহটি দেহ বিকৃত হয়ে গেছে।  মরদেহের গায়ে থাকা পোশাকের পকেটে তিনটি ডলার এবং ১০ হাজার টাকাসহ একটি কার্ড এবং কিছু কাগজপত্র দেখতে পাওয়া যায়। মরদেহের পকেটে পাওয়া কার্ডটির   জাতিসংঘের কর্মকর্তা মুলাটার বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। মরদেহ উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে আনা হচ্ছে।

৩০ জুলাই সোমবার সাকালে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাওয়ার জন্য ইউএনএইচসিআর’র সুরক্ষা কর্মকর্তা সোলিমান মুলাটা হোটেল ত্যাগ করেন।

প্রতিদিন তিনি কাজ শেষে হোটেলে ফেরত আসলেও সোমবার থেকে তিনি আর ফেরত আসেননি। বিষয়টি হোটেলের পক্ষ থেকে ইউএনএইচসিআর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়।

সোলিমান মুলাটা মরদেহ পাওয়ার বিষয়ে বিষয়টি ইউএনএইচসিআর’র কক্সবাজারে কর্মকর্তা ইফতেখার উদ্দিন বায়েজিদ বলেন, পুলিশের মাধ্যমে সোলিমান মুলাটার মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে তারা রওনা হয়েছেন।

সুত্র-পরিবর্তন ডটকম

মতামত...