,

মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হতেই হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আলো নিউজ ২৪ ::

‘আমরা আর কোনো ঐশি তৈরি হতে দিব না। আমাদের মেধাকে বাঁচিয়ে রাখতেই হবে। আমাদের যুব সমাজকে বাঁচিয়ে রাখতেই হবে। মাদকের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছি এ যুদ্ধে জয়ী হতেই হবে।’ খুলনায় জলদস্যু বাহিনীর আত্মসমর্পণের সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এসব কথা বলেন।

লবনচোরায় র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ানের (র‍্যাব) কার্যালয়ে ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘অনেকেই আমাকে বলছেন, রাতে টিভিতেও এ সমস্ত কথা বলা হয়ে থাকে; ‘ক্রসফায়ার হয়েছে, বিনা কারণে গুলিবিদ্ধ হয়েছে’।

‘আমি স্পষ্ট করে বলে দিতে চাই আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী কোনো অবস্থাতেই তাদের ওপর গুলি করে না যতক্ষণ পর্যন্ত তারা চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি না হয়। আমাদের কাছে যে লিস্ট রয়েছে সে লিস্ট অনুযায়ী আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী তাদের খুঁজছে।’

চলমান মাদক নিধন অভিযান সম্পর্কে তিনি বলেন, যারা নিজেদের অপরাধ বুঝতে পেরে আত্মসমর্পণ করেছে, তাদেরকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাৎক্ষণিক বিচার করা হচ্ছে।তাছাড়া গ্রেফতারের পর কেউ নির্দোষ প্রমাণিত হলে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে।

‘আমরা কখনো কাউকে ক্রসফায়ারে দিই না।যারা চ্যালেঞ্জ করে তারাই তাদের বিপদ ডেকে আনে।আমরা এ পর্যন্ত তিনহাজারের মতো মাদক ব্যবসায়ী ও সরবরাহকারীকে কারাগারে পাঠিয়েছি।তারা তো ক্রসফায়ারে পড়েনি।’

জলদস্যু বাহিনীর আত্মসমর্পণের এ অনুষ্ঠানে বরিশাল ও খুলনার দাদা ভাই বাহিনী, হান্নান বাহিনী, আমির আলী বাহিনী, সুর্য বাহিনী, ছোট সামছু বাহিনী ও মুন্না বাহিনীর প্রধান ও ৫৭জন জলদস্যু আত্মসমর্পণ করেন।এ সময় তারা ৫৮টি অস্ত্র ও এক হাজার ২৮৪টি গুলি জমা দেন।সঙ্গে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার অঙ্গীকার করেন।

মতামত...