,

‘আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিন’

ডেস্ক নিউজ ::

তরুন সমাজ, ছাত্র ও শ্রমিক সমাজকে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠার আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। আজ শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের আয়োজনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন ও বর্তমান নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ আহ্বান জানান। মোশাররফ হোসেন বলেন, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে হলে প্রয়োজন খালেদা জিয়ার মুক্তি। কারণ খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র ও আগামী নির্বাচন এক সুতোয় গাঁথা। তাই এর জন্য ছাত্র ও যুবসমাজের যে যে অবস্থানে আছেন সেই অবস্থান থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। কারণ গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে হলে আন্দোলন সংগ্রামের বিকল্প নেই।

এই সংগ্রামে সব সময় যুবকরা সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়। আমি আশা করি এদেশের যুব সমাজ, ছাত্রসমাজ ও শ্রমিক সমাজ ঐক্যবদ্ধ হয়ে একটি জনজাগরণ হবে। তার মাধ্যমে এই স্বৈরাচারি সরকার হটিয়ে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে, সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে  নির্বাচনকালীন সরকার প্রতিষ্ঠা করে আগামী নির্বাচন করবে। দেশনেত্রীর নেতৃত্বে সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে আমরা এদেশে একটি জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করব।
তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে ৪ টি নির্বাচন হয়েছে। দুই নির্বাচনে বিএনপিকে ক্ষমতায় এনেছে, দুই নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনেছে। অথচ শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে তত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করেছেন। ১৯৯৬ সালের পত্রপত্রিকাগুলো খুলে দেখেন তখন শেখ হাসিনার কি বক্তব্য। আর এখন তার কি বক্তব্য। পৃথিবীতে নাকি কোথাও তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা নেই। যেদেশে ৪ টি নির্বাচন এই শেখ হাসিনা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে করেছে তিনি বলেন পৃথিবীতে এর কোন উদাহরণ নেই। সরকারের প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করে নির্বাচন করার নজিরও নাকি পৃথিবীতে নেই। অথচ এদেশের নির্বাচন ৪ বার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে মাইনাস করে যে নির্বাচনের নকশা করা হয়েছে তা বাংলাদেশের মানুষ কোনোদিন গ্রহণ করবে না, মেনে নেবে না। ৫ই জানুয়ারির মতো নির্বাচন আর দেশের মানুষ মেনে নেবে না। বার বার জনগণকে প্রতারণা করা যায় না। আবারও ৫ই জানুয়ারির পথে হাটলে জনগণ আওয়ামী লীগকে প্রতিহত করবে। ভোটের অধিকার, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যখন তারা মাঠে নামবে তখন আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে থাকবে না। তারা প্রতিরোধ করবে। যারা প্রতারণা করে ক্ষমতায় টিকে থাকার কথা চিন্তা করেন তারা অপেক্ষা করেন। সময় আর বেশিদিন নেই। বিএনপির এই নেতা আরো বলেন, আজকে রোজার মধ্যে যে পরিমাণ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েছে, এতো উর্ধ্বোগতি হয়েছে যে, জনগণের কাছে তারা ভোট চাইতে পারে না। তারা জানে জনগণ সুযোগ পেলে আর ভোট দেবে না আওয়ামী লীগকে। নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উপদেষ্টা আলহাজ্ব মো. মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন আলম, ইসমাঈল হোসেন বেঙ্গল, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমতুল্লাহ প্রমুখ।

মতামত...