,

মিয়ানমারে সেই পুলিশের জেল

ডেস্ক নিউজ::

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের দু’জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পুলিশি আচরণবিধি লঙ্ঘন করে সাক্ষ্য দেয়ার অভিযোগে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে অজ্ঞাত কারাবাসে পাঠানো হয়েছে। পুলিশের এক মুখপাত্র রোববার এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি বিস্তারিত জানাতে অস্বীকৃতি জানান। রয়টার্সের খবরে বলা হয়, শাস্তি  পাওয়া পুলিশের ওই কর্মকর্তার নাম হলো ক্যাপ্টেন মোই ইয়ান নাইং। তিনি ২০ শে এপ্রিল আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, গত ডিসেম্বরে দু’জন সাংবাদিককে ফাঁদে পেলার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছিলেন সিনিয়র একজন কর্মকর্তা। তিনি বলেন, কর্মকর্তারা তাকে বলেছিলেন যে, তিনি যেন ইয়াঙ্গুনের একটি রেস্তোরাঁয় সাংবাদিক ওয়া লোন-এর সঙ্গে সাক্ষাত করেন এবং তাকে কিছু গোপন দলিলপত্র দেন। আদালতে তিনি বলেন, এরপর ১২ই ডিসেম্বর রাত থেকে তাকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছিল। ওই রাতেই রয়টার্সের দু’ সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করা হয়। এ জন্য তার বিরুদ্ধে পুলিশি আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে। এ বিষয়ে জানুয়ারি থেকে মামলার শুনানি চালিয়ে যাচ্ছিল ইয়াঙ্গুনের একটি আদালত। এই শুনানির ওপর ভিত্তি করে আদালতের সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা সাংবাদিক ওয়া লোন (৩২) ও তার সহযোগী কাইওয়া সোয়ে ওও (২৮)-এর বিরুদ্ধে গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হবে কিনা। এ অভিযোগে তাদেরকে অভিযুক্ত করা হলে সর্বোচ্চ শাস্তি হতে পারে ১৪ বছরের জেল। রাখাইনের পশ্চিমাঞ্চলীয় একটি গ্রামে ১০ জন রোহিঙ্গা মুসলিমকে হত্যা করা হয়। তাদের বিষয়ে অনুসন্ধান করছিলেন ওই দু’সাংবাদিক। এ সময়েই তাদেরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই ১০ রোহিঙ্গাকে হত্যার জন্য মিয়ানমারের সাত সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে ১০ বছরের জেল দেয়া হয়েছে।

মতামত...