,

`বস্তুনিষ্ট সংবাদ জনগন তথা দেশের উন্নয়নে সহায়ক’.. টেকনাফের সাংবাদিকদের বনভোজন- ২০১৮ তে এমপি বদি

আমান উল্লাহ ::

টেকনাফ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, সাংবাদিক ফোরাম ও ক্রাইম রিপোটার্স সোসাইটির যৌথ উদ্যোগে বনভোজন- ২০১৮ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।
কক্সবাজারের ইনানীতে দক্ষিন বনবিভাগের রেস্ট হাউজ ও পিকনিক স্পটে ২৪ মার্চ শনিবার নবীন-প্রবীন সাংবাদিকদের নিয়ে এই বন ভোজনের আয়োজন করা হয়।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার- ০৪ (উখিয়া-টেকনাফ) এর সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন সময়ের টেকনাফ থানা ছাত্রলীগেরসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, টেকনাফ উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা আকতার মিলি।
টেকনাফ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ ছৈয়দ হোছাইনের সভাপতিত্বে ও উপদেষ্টা জাবেদ ইকবাল চৌধুরীর সঞ্চালনায় প্রথম অধিবেশনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি আবদুর রহমান বদি এমপি বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাংবাদিকদের বিচরণ রয়েছে। তাই এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমুলক চিত্র, মানুষের দূর্ভোগের কথা একমাত্র সাংবাদিকরা তুলে ধরতে পারেন। বস্তুনিষ্ট সংবাদ জনগন তথা দেশের উন্নয়নে সহায়তা করে, সমাজের অসংগতি দূর হবে, উন্নয়ন চিত্রের প্রতিফলন ঘটবে, আর হলুদ সাংবাদিকতা কুফল বয়ে আনে।
টেকনাফের বদনাম মাদক ইয়াবা। তাই সঠিক লেখনির মাধ্যমে প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীদের মুখোশ উম্মোচন করতে হবে। সাংবাদিকরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে দূর্নীাতি মুক্ত জাতী ও দেশ গঠনে সহায়ক। সমাজ ও জাতি জাগ্রত হবে।
তিনি আরো বলেন, বিভিন্ন মিডিয়ায় আমি এমপি বদিকে ইয়াবার সাথে সম্পৃক্ত করে সংবাদ পরিবেশন করে থাকে। তাদের উদ্দেশ্যে চ্যােেলঞ্জ ছুঁড়ে বলছি, ‘ইয়বার সাথে বিন্দুমাত্র সংশ্লিষ্টতা প্রমান করতে পারলে স্বেচ্ছায় সংসদ থেকে ত্যাগ করব’।
তিনি সংবাদিকদের উদ্দেশ্যে টেকনাফে এক্সক্লোসিভ জোন, জইল্যার দিয়ায় পর্যটন ট্যুরিজম, মেরিন ড্রাইভ সড়ক, বাংলাদেশ- মিয়ানমার ট্রানজিট জেটিসহ বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরে বলেন, আসুন একটি সুন্দর সমাজ, দেশ ও মানুষের কল্যাণে একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করি।

দ্বিতীয় অধিবেশনে সমসাময়িক সংবাদ জগৎ ও সাংবাদিকতা বিষয়ে দিক নিদের্শনামূলক বক্তব্যে কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আলী জিন্নাত বলেন, সাংবাদিকতা একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। এই পেশাকে নোংরামি করতে কিছু মাফিয়া মাদক কারবারি নিজেদের বাঁচাতে তাদের ঘনিষ্টদের এ পেশায় ঢুকিয়ে প্রকৃত সাংবাদিকদের মধ্যে বিভাজন ও বৈষম্য সৃষ্টি করে রেখেছে। বিশেষ করে টেকনাফে এই চিত্রটি বেশী লক্ষণীয়। একজন প্রকৃত সাংবাদিকদের কোন বন্ধু নেই। যখন কলম হাতে নেবে তখন সে যেই হউক বস্তুনিষ্ট ও সত্য ঘটনা লিখতে দ্বিধা করেনা। তাই তাদের চিহ্নীত করে সাংবাদিকতায় এগিয়ে যেতে ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরী। তিনি সুবিধামত সময়ে টেকনাফের সাংবাদিকদের নিয়ে একটি কর্মশালা আয়োজনের ঘোষনা দেন।

কক্সবাজার রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি রাসেল চৌধুরী বলেন, প্রকৃত সাংবাদিকতায় কোন দল বল নেই। যখন কলম হাতে নেবে তখন কোন এক পক্ষের হয়ে সংবাদ পরিবেশ হয় না। তিনি সার্বজনিন বিষয়ে সত্য লেখনী তুলে ধরবেন। এক্ষেত্রে কারও পক্ষে-বিপক্ষে সংবাদটি হয়ে গেল তা বিবেচ্য নই। সত্য ঘটনা তুলে ধরাই হচ্ছে একজন সাংবাদিকের মুল বিবেচ্য বিষয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার রিপোটার্স ইউনিটির সহ-সভাপতি জাবেদ আবেদীন শাহিন, সাধারণ সম্পাদক সায়ীদ আলমগীর, উখিয়া প্রেস ক্লাবের সভপতি মো: রফিক উদ্দিন, উখিয়া প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি আমানুল হক বাবুল, এশিয়ান টিভি কক্সবাজার প্রতিনিধি মো: সফিক, ডেইলী সান কক্সবাজার প্রতিনিধি ওয়াহিদুর রহমান রুবেল, উখিয়া প্রেস ক্লাবের মোঃ রফিক, আমানুল হক বাবুল, শফিউল আলম আজাদ, হুমায়ুন কবির জুশান, আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ইমাম খাইর, প্রিয় চট্টগ্রাম পত্রিকার কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি নিজাম উদ্দিন, সাঙ্গু পত্রিকার লোহাগাড়া প্রতিনিধি জাহেদুল ইসলাম, অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, টেকনাফ প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আশেক উল্লাহ ফারুকী, টেকনাফ প্রেস ক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি মু. তাহের নঈম, গোলাম আজম খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন, সাংবাদিক ফোরাম ও ক্রাইম রিপোর্টাস সোসাইটির উপদেষ্টা নুরুল করিম রাসেল, টেকনাফ প্রেস ক্লাবের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন রশীদ, দপ্তর সম্পাদক কায়ছার পারভেজ চৌধুরী, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রমজান উদ্দিন পটল, সদস্য ও টিভিজার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, জসিম উদ্দিন টিপু, জিয়াউর রহমান জিয়া, আমাদের টেকনাফ নিউজ র্পোটালের সম্পাদক মো: আলম বাহাদুর, টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি নুরতাজুল মোস্তফা শাহিনশাহ, সাংবাদিক ফোরাম সভাপতি আমান উল্লাহ কবির, সহ-সভাপতি মো: ইসলাম, অর্থ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য জামাল উদ্দিন, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ জুবাইর, ক্রাইম রিপোর্টাস সোসাইটির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন ভুলু, সহ-সভাপতি রাশেদ মাহমুদ রাসেল, সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম, সদস্য ছলাহ উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, মোঃ রফিক, মোজাম্মেল হক বাহার, সাদ্দাম হোসেন, আকতার হোসেন হিরু, রিয়াজুল হাসান খোকন, আনোয়ার হোসেন, ফরিদুল আলম, আবছার কবির আকাশ, নুরুল আলম, মোঃ শফি, ফয়েজুল ইসলাম রানা, জিয়াউল হক জিয়া, আনোয়ার হোসেন, আবদুল মাবুদ, মোঃ শহীদুল্লাহ, শামশু উদ্দীন, মোঃ আমিন, মিজানুর রহমান মিজান, মোঃ ইসহাক, মোঃ ফরিদ, মোঃ উল্লাহ প্রমুখ।
টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন, সাংবাদিক ফোরাম ও ক্রাইম রিপোর্টাস সোসাইটি আয়োজিত বনভোজন- ২০১৮ উপলক্ষে আলোচনা সভা শেষে নারী অতিথিদের মিউজিক্যাল বল, সাংবাদিকদের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, র‌্যাফেল ড্র ছাড়াও ছিলো মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা।
অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ ও অনুষ্ঠান শেষে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিজয়ীদের মধ্যে পুুরুষ্কার বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*