,

টেকনাফে লেঙ্গুরবিল এলাকার ১১ মালয়েশিয়াগামী দুই বছর ধরে নিখোঁজ, স্বজনদের আহাজারি

m family 06.05.15শাহীনশাহ

সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের অসংখ্য মালয়েশিয়াগামী দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে নিখোঁজ রয়েছে। অতি সম্প্রতি উপজেলার সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল এলাকায় সরেজমিন অনুসন্ধান চালিয়ে নিখোঁজ ১১ জনের বিস্তারিত তথ্য পাওয়া গেছে। এরা পাশাপাশি গ্রামের হলেও পরস্পর আতœীয় স্বজন। পরিবারের স্বপ্ন, কোননা কোন সময় তাদের কাছে ফিরবে নিখোঁজ ব্যক্তিদ্বয়। সম্প্রতি থাইল্যান্ডের জঙ্গলে গণকবরের সন্ধান পরিবারের কাছে পৌঁছলে আহাজারিতে ফেটে পড়ে পরিবারসমূহ। প্রকম্পিত হচ্ছে আকাশ বাতাস। তাদের ছেলে মেয়েদের মধ্যে নেমে আসে শোকের ছাঁয়া। টেকনাফ উপজেলা সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল ও হাতিয়ারঘোনার করাচিপাড়া সরেজমিন ঘুরে দেখা মিলে ওইসব চিত্র। খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, ২ বছরের বেশী দিন পূর্বে  স্বপ্ন ও অতিরিক্ত  টাকা উপার্জনের দেশ মালয়েশিয়া পাঁড়ি জামানোর উদ্দেশ্যে বাড়ি ও পরিবার পরিজন ত্যাগ করেছিলেন হাতিয়ারঘোনা করাচিপাড়ার সুলতান মিস্ত্রির ৩ ছেলে। তারা হলেন, যথাক্রমে মোঃ ইসমাঈল (৩০), মোঃ তৈয়ব (২৮), পাঁচ ছেলে মেয়ের জনক মোঃ ছিদ্দিক। এ ছাড়া নিখোঁজ রয়েছে মৃত সৈয়দ আহমদের ছেলে মোঃ আমিন (২২),  মোঃ আলীর ছেলে আব্দু শুক্কুর (৩০), রশিদ আহমদের ছেলে মোঃ ইব্রাহীম (২২),  লেঙ্গুরবিল এলাকার  ফজল আহমদের ছেলে মোঃ হেলাল (১৮), কবির আহমদের ছেলে মোঃ আমিন,  মৌঃ জহির আহমদের ছেলে মোঃ ইউনুছ (৩০), আহমদ হোসেনের ছেলে মোঃ তৈয়ব(৩০) মোঃ শফি উল্লাহ’র ছেলে মহিবুল্লাহসহ  (২৫) আরো অনেকে। দীর্ঘ ২ বছরের অধিক সময় ধরে নিখোঁজে থাকা পরিবার পরিজনদের মধ্যে চলছে অভাব অনটন এবং না খেয়ে উপোস থাকার পালা। শিক্ষা দ্বীক্ষায় পিছিয়ে রয়েছে ওইসব পরিবারের সন্তান- সন্ততিগণ। সম্প্রতি থাইল্যন্ডের জঙ্গলে গণকবর থেকে লাশ বের করার সন্ধান ওইসব পরিবার সমূহে পৌঁছলে তাদের  আহাজারিতে ধ্বনিত হচ্ছে আকাশ বাতাস। হাতিয়ারঘোনা করচিপাড়া এলাকার একই পরিবারের নিখোঁজ  তিন সন্তানের পিতা সুলতান মিস্ত্রি জানান দীর্ঘ ২ বছর ধরে আমার ছেলেরা মালয়েশিয়ার উদ্দেশ্য বাড়ি ঘর ত্যাগ করেছিল, তখন থেকে তাদের আরা কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ মোঃ আমিনের ভাই মোঃ হোছন জানান, থাই জঙ্গলে আমার ভাই আছেকিনা সন্দেহ হচ্ছে। অন্যথায় দুই বছর যাবৎ আমাদের সাথে কোন যোগাযোগ করলনা! নিখোঁজ মোঃ আমিনের স্ত্রী মোমেনা খাতুন বলেন, ৩ মেয়ে ১ ছেলেকে খাওয়া দাওয়া ও পড়া লেখা করাতে আমার সীমাহীন কষ্ট হচ্ছে। নিখোঁজ মোঃ ইউনুছের পিতা মৌঃ জহির আহমদ বলেন, জাহালিয়া পাড়ার বিশাল অর্থ বিত্তের মালিক মৌ ঃ নাজির (বর্তমানে মালয়েশিয়া) ও ছালেহ আহমদ দালালদের মাধ্যমে আমার ছেলে মালয়েশিয়া গিয়েছিল। তখন থেকে তার আর কোন হদিস পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আতাউর রহমান খন্দকার জানান-  দালাল ও মালয়েশিয়াগীদের  আটক অভিযান অব্যাহত রয়েছে। পূর্বে তুলনায় এ অভিযান ব্যাপক ও জোরদার করা হবে। টেকনাফ ৪২ বিজিবির অধিনায়ক লে ঃ কর্ণেল মোঃ আবুজার আল জাহিদ জানান- দালাল ও মালয়েশিয়াগামীদের আটকের জন্য বিজিবির নানা অভিযানা অব্যহত রয়েছে। পাশাপাশি সীমান্ত বিজিবি টহল জোরদার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*