,

ঈদগাঁওয়ে পরিত্যাক্ত জমিতে সবজির বাম্পার ফলন

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও []Eidgong Shak Subji
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও’র বিভিন্ন ইউনিয়নের পরিত্যাক্ত জমিতে শীতকালীন সবজি ভরপুর হয়ে উঠেছে। সবুজ সবজির ভরপুর হয়ে উঠেছে গ্রাম-গঞ্জ ও হাটবাজার। সরেজমিনে এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বৃহত্তর ঈদগাঁও’য়ের জালালাবাদ, ইসলামাবাদ, পোকখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে যেসব জমি অনাবাদী ও পরিত্যাক্ত ছিল সেগুলোতে শাক-সবজিসহ নানা ধরণের ফলমূলে ভরপুর হয়ে উঠেছে। এছাড়াও বাড়তি সুবিধা হিসাবে বিদ্যুৎ ও সেচের কোন সংকট না থাকায় সবজি চাষে কৃষকদের বেগ পেতে হয়নি। চলতি বছরে বৃহত্তর ঈদগাঁও’র উৎপাদিত সবজি এলাকার চাহিদা মিটিয়ে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে পরিবার-পরিজন নিয়ে লাভবান হয়েছে।
সূত্র জানায় ইসলামাবাদ, জালালাবাদ, পোকখালী, ইসলামপুর, চৌফলদন্ডী ও ঈদগাঁও ইউনিয়নের বিভিন্ন পরিত্যাক্ত জমিতে কৃষকরা সবজি চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হওয়ার লক্ষ্যে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আর এতে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান ও সবজি চাষে জড়িত পরিবারের আর্থিক সংস্থানের পথ সুগম হয়েছে। পোকখালী-ইসলামাবাদ, ঈদগাঁওতে বিদ্যুতের সমস্যা না থাকায় কৃষকরা সবজি চাষ করে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সবজি চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। পোকখালীর পশ্চিম পাড়ার নুর নূর বেগম, ইসলামাবাদ বোয়াল খালীর আক্তার বেগম জানান, চলতি বছর অনাবাদী জমিতে সবজি চাষ করে তারা উপকৃত হয়েছেন। এক্ষেত্রে এলাকার অর্থনৈতিক অবস্থারও পরিবর্তন হয়েছে বলে তারা দাবী করেন।  জালালাবাদ মোহনভিলার কৃষক ইয়াছিন উল্লাহ জানান আল্লাহ’র রহমতে এ বছর শাক-সবজির ব্যাপক ফলন হয়েছে।
সদর উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা এনায়েত-ই-রাব্বি চলতি সনে কৃষকরা সরকারী ভাবে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা পাওয়ায় সবজি চাষে ব্যাপকভাবে সাড়া দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*